কমান্ড প্রম্পট বা সিএমডি ব্যবহার করে যেভাবে পিসি হাইবারনেট, স্লিপ, স্ক্রিন লক, শাটডাউন, রিস্টার্ট করবেন এবং যেভাবে সিএমডির ব্যাকগ্রাউন্ড ও টেক্সট কালার পরিবর্তন তথা কাস্টোমাইজ করবেন

 ***কমান্ড প্রম্পট বা সিএমডি ব্যবহার করে যেভাবে পিসি হাইবারনেট, স্লিপ, স্ক্রিন লক, শাটডাউন, রিস্টার্ট করবেন এবং যেভাবে সিএমডির ব্যাকগ্রাউন্ড ও টেক্সট কালার পরিবর্তন তথা কাস্টোমাইজ করবেন***

   - লিখেছেন আবদুল্লাহ্ আল ফারুক।

আসসালামু আলাইকুম! আজকে দেখুন- কিভাবে উইন্ডোজ পিসি কমান্ড প্রম্পট বা সিএমডি-এর সাহায্যে স্ক্রিন লক, শাটডাউন, রিস্টার্ট, স্লিপ এবং হাইবারনেট করা যায়। পাশাপাশি দেখুন- কিভাবে কমান্ড প্রম্পট-এর গ্রাফিক্যাল ইউজার ইন্টারফেসের (GUI) উইন্ডো কালার,

টেক্সট কালার চেইঞ্জ করবেন- সর্বোপরি, কিভাবে সিএমডি কাস্টোমাইজ করবেন। তো, চলুন- শুরু করা যাক!


 ১. কীবোর্ডের উইন্ডোজ লোগো+R চাপুন।


 ২. রান অপশন চালু হলে টাইপ করুন “cmd”.






৩. কমান্ড প্রম্পট-এর উইন্ডো ওপেন হলে এবার তাৎক্ষণিকভাবে কম্পিউটার শাটডাউন করতে হলে নিচের কমান্ডটি দিন- [কমান্ডগুলো কপি-পেস্টও করতে পারেন। ]

                                     shutdown.exe -s -t 00





[শেষের oo সংখ্যাটি নির্দেশ করে যে- কত সেকেন্ডে পিসি শাটডাউন হবে। আপনি যদি টাইপ করেন-1900; তাহলে ঠিক 1900 সেকেন্ড বা 31.7 মিনিট পরেই পিসি অফ হবে; এর মাঝের সময়ে স্ক্রিনে “You are about to be signed out” লেখা ভেসে থাকবে! “উইন্ডোজ লোগো+D” চেপে আপনি আপনার নরম্যাল কাজ এর মধ্যে চালিয়ে যেতে পারেন। {ছোট ভাই বা অন্য বন্ধুরা গেমস বা নেট ব্রাউজ করতে থাকলে ট্রিকটি ইউজ করতে পারেন!}-- আর, oo সেকেন্ডে অফ না করাই ভালো; কারণ, অন্য ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেসগুলো ক্লোজ করতে কিছু সময়ের দরকার হয়- তাই, 00 এর বদলে 03 থেকে 08 সেকেন্ড ইউজ করতে পারেন!]


 ৪. রিস্টার্টের জন্য-

                                      shutdown.exe -r -t 00


০৫. স্লিপ মোডে [পিসির স্ক্রিন এবং রানিং অ্যাপ প্রসেস বন্ধ থাকবে; কিন্তু, হার্ডওয়্যার চালু থাকবে;] যাওয়ার জন্যে সিএমডি-তে টাইপ করুন-

                                      rundll32.exe powrprof.dll,SetSuspendState 0,1,0


 ০৬. হাইবারনেট করার জন্যে- [এটা স্লিপ মোডের চেয়েও আরো কম পাওয়ার ইউজ করে]


                                      rundll32.exe PowrProf.dll,SetSuspendState


 [হাইবারনেশন আগে থেকে আপনার কম্পিউটারে অফ থাকলে নিচের কোডটি টাইপ করে এন্টার চাপুন! আর, এটার জন্যে অ্যাডমিনিস্ট্রেটর হিসেবে cmd ওপেন করে নিবেন। অ্যাডমিনিস্ট্রেটর প্রিভিলেজ নিয়ে কমান্ড প্রম্পট চালু করতে হলে স্টার্ট মেন্যুতে গিয়ে প্রোগ্রাম লিস্ট হতে “Windows System” ফোল্ডারের মধ্যে “Command Prompt”-এ রাইট ক্লিক করে “More” অপশনে গিয়ে “Run as Administrator” সিলেক্ট করুন। তারপর নিচের কমান্ডটি দিন- হাইবারনেশন অন করার জন্য। ]


                                       powercfg.exe/hibernate on





 [একটা কথা বলে রাখি- হাইবারনেশন অন থাকলে কিন্তু আপনি উইন্ডোজের “Fast startup” ফিচারটি আর ইউজ করতে পারবেন না- যেটা কম্পিউটার অফ থেকে অন করার সময় দ্রুত অপারেটিং সিস্টেম লোড করার জন্যে Hibernation এবং Shutdown- দুটি ইউটিলিটিকেই সমন্বয় করে; তাই, হাইবারনেশন অফ করতে চাইলে এই কমান্ডটি দিন- ]


                                       powercfg.exe/hibernate off                                                     


 ০৭. পিসি স্ক্রিন লক করার জন্যে- [অথবা, "উইন্ডোজ লোগো+L" চাপুন। তাতেও লক হবে! ]


                                       rundll32.exe User32.dll,LockWorkStation


 [কমান্ডগুলো উইন্ডোজ Batch File হিসেবে ডেস্কটপে সেইভ করে রেখে দিতে পারেন- এর জন্যে Notepad++ ওপেন করে কোডটি টাইপ বা পেস্ট করুন এবং ফাইল মেন্যুতে গিয়ে "সেইভ এজ" "Batch File(.bat)" নির্বাচন করুন এবং পছন্দমত নাম দিয়ে ডেস্কটপে সেইভ করুন।




অথবা, নরম্যাল নোটপ্যাডে সেইভ করে ফাইল এক্সটেনশনটি .txt থেকে .bat -তে জাস্ট রিনেইম করে দিন। ব্যাস! এবার সিম্পলি ব্যাচ ফাইলে ক্লিক করেই টাস্কগুলো করতে পারবেন। ]





০৮. কালার পরিবর্তনের জন্যে কমান্ড প্রম্পটের টাইটেল বার-এ রাইট ক্লিক করুন এবং সেখান থেকে “Properties” নির্বাচন করুন।





০৯. এখন “Colors” ট্যাবে গিয়ে আপনার পছন্দমত স্ক্রিন টেক্সট এবং ব্যাকগ্রাউন্ড কালার সেট করে নিতে পারেন।





১০. “Font”- ট্যাব থেকে টেক্সট ফন্ট স্টাইল এবং সাইজ নির্ধারণ করে নিতে পারেন।


“Layout”- ট্যাব থেকে উইন্ডো সাইজ, স্ক্রিন বাফার, উইন্ডো পজিশন ঠিক করে নিতে পারেন।


“Options”- ট্যাব হতে স্ক্রিনের কার্সর সাইজ, Command History- সহ বিভিন্ন “অপশন”গুলো (!) কাস্টোমাইজ করে নিতে পারেন!


সিএমডি উইন্ডো বন্ধ করতে “exit” টাইপ করে এন্টার চাপুন,


অথবা, “ALT+F4” চাপুন;


আর, সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি উইন্ডোর উপরের বাম পাশের কর্ণারের “ক্রস” অর্থাৎ, ক্লোজ বাটনে ক্লিক করুন। (!)


তো, বন্ধুরা, আজ এ পর্যন্তই!


আল্লাহ্‌ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা সবাইকে ভালো রাখুন।


আমার ওয়েবসাইটঃ www.onusahitya.tk 


মা’আসসালাম।।

***

1 Comments

  1. As a end result, it’s necessary to examine local legal guidelines and regulations to see whether or not on-line playing is legal or not. This varies relying on the playing web site and the chosen withdrawal option. Generally, in style on-line playing sites, like the ones we’ve beneficial, course of and pay cashouts immediately should you use eWallets and cryptocurrencies similar to Bitcoin. In contrast, bank card withdrawals often take between a number of} hours and forty eight hours - or even more. Thus, 코인카지노 we recommend utilizing actual cash playing sites fully licensed by a reputable physique, such as the Malta Gaming Authority or the UK Gambling Commission.

    ReplyDelete
Previous Post Next Post